Home / Golpo-Kotha / আমিও খুশিতে গুলুমুলু হয়ে গেলাম

আমিও খুশিতে গুলুমুলু হয়ে গেলাম

আমিও খুশিতে গুলুমুলু হয়ে গেলাম। বান্ধবী রেস্টুরেন্টে গিয়েই একটা টেবিলের দিকে এগিয়ে গেলো৷ সেই টেবিলে চেয়ারে বসা একটা ছেলে, আমার সমানই। বান্ধবী আমাকে দেখা করিয়ে দিয়ে বলল…. . –রুবেল সারপ্রাইজ, এটা তোর হবু দুলাভাই। বাবু ওটা তোমার শালা। . আমাকে দেখে বান্ধবীর বফ হাত বাড়িয়ে দিলো আমিও হাত মেলালাম। কিন্তু অবাক হলাম তখন যখন বান্ধবী বলল…. . -রুবেল শপিং ব্যাগ গুলো দে তোর দুলাভাই কে, এগুলো তার জন্য।

এই নাও বাবু এগুলো তোমার জন্য উপহার। তোমার আর রুবেলের হাইট একই তাই তোমাকে সারপ্রাইজ দেওয়ার জন্য ওর মাধ্যমে কিনেছি। . মুহূর্তেই মাথায় আকাশ ভেঙে পরলো৷ মুঝে মারো তালোই, মুঝে মারো। মুই এ জীবন নেহি রাহুঙ্গী। এটা কি হলো, ভাবতে পারছিনা। মুহূর্তেই ডিপ্রেশনে চলে গেলাম। বান্ধবী আমার দিকে তাকিয়ে মুচকি হেসে বলল… . –তোকে অনেক কষ্ট দিলাম দোস্ত, যা বাসায় গিয়ে রেস্ট করগে। . বলেই বান্ধবী ওর বফকে নিয়ে চলে গেলো।।

আমি খাম্বার মতন দাঁড়িয়ে রইলাম। তখনই আম্মা ফোন দিলো, রিসিভ করতেই হুংকার দিয়ে বলল…. . –হ্রামি তুই আমার টেকা চুরি করছস। তোরে আমি এই শিখিয়েছি? . -সরি আম্মা। . –আজকের পর বাসায় আসবিনা, আসলে বেঁধে পিটাবো৷ . বলেই আম্মা ফোন কেঁটে দিলো। আহারে! শালার কুত্তা ভাগ্য। শপিং ও হলোনা, বাসায়ও জায়গা হলোনা। রেস্টুরেন্ট থেকে বের হয়ে ফুটপাত দিয়ে হাটছি, ছোট বোনের কল আসলো। . –ঐ কুত্তা তুই আজকেও আমার পারফিউম নিছস?

ডিপ্রেশনে আছিরে বনু। . –আচ্ছা শোন, বাসায় আসিসনা মা কুপাবে। . -জীবনডা বেদনারে, কেউ বুঝলনা। . –হরে ভাই তুইও বুঝলিনা, পারফিউমের বদলে মশা মারা স্প্রে মারছিস শরীরে…! . -মানে? . –আমি জানতাম তোর চোখ আমার পারফিউমে পরছে, তাই ওটা সরিয়ে মশা মারা স্প্রে রেখেছি। যাজ্ঞে ভালো থাকিস ভাউয়ু, লাপ্পুউউ..সবকিছু মাথার উপর দিয়ে গেলো। এরজন্যই কি পারফিউমের গন্ধ বিদঘুটে লাগছিলো? খোদাহ! আমার সাথেই কেন এমন হয়? এত ডিপ্রেশন নিয়ে বাচা যায়না। ও নানিহ মুঝে মারো, মুঝে মারো ইয়ার।

About admin

Check Also

জেনিয়ার সাথে কথা বলছিলো

জেনিয়ার সাথে কথা বলছিলো,নিচে হৈ-হুল্লোড় শুনো এই জেনিয়া লাইনটা একটু কাটো তো নিচে কি যেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *